বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৫ জুলাই ২০১৭

প্লাজমা ফিজিক্স বিভাগ

ভূমিকা

প্লাজমা ফিজিক্স আধুনিক পদার্থবিজ্ঞানের সবচেয়ে সক্রিয় একটি গবেষণা ক্ষেত্র।  আয়ন এবং ইলেক্ট্রনের সমন্বয়ে গঠিত গ্যাস হিসাবে প্লাজমাকে চিন্তা করা যেতে পারে এবং এ আয়নিত গ্যাসকে পদার্থের চতুর্থ অবস্থা বলা হয়। এটা অনুমান করা হয় যে, দৃশ্যমান মহাবিশ্বের ৯৯% প্লাজমা দিয়ে গঠিত। অবশিষ্ট ১% -এ রয়েছে গ্রহাণু, ধূমকেতু এবং গ্রহ যারা কঠিন, তরল এবং গ্যাসীয় পদার্থের তৈরি। প্লাজমা ফিজিক্সের বিভিন্ন কৌশল আই.সি. (ইন্টিগ্রেটেড সার্কিট) তৈরি থেকে শুরু করে ছায়াপথের সর্পিল গঠন ব্যাখ্যা করতে ব্যবহৃত হয়। অন্যকথায়, ন্যানোমিটার (১০-৯ মিটার) পরিসর থেকে শুরু করে কিলোপারসেকস (১০১৯ মিটার) পরিসরের বিষয় বস্তুর বিচিত্র ধর্মাবলী ব্যাখ্যায় প্লাজমা ফিজিক্স অবদান রেখে চলছে। যাহোক, প্লাজমা বিষয়ক প্রচলিত গবেষণা ক্ষেত্রগুলো হলো: প্রকৃতির বিচিত্র ঘটনা, ফিউশন শক্তি, আলোক যন্ত্র, অর্ধপরিবাহী চিপ উৎপাদন (ইচিং, ডোপিং), উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন লেজার, ইত্যাদি।

অপরপক্ষে, আধুনিক জীবনযাত্রাকে এগিয়ে নিতে  প্লাজমা  ভিত্তিক প্রযুক্তির উন্নয়ন দ্রুত এগিয়ে চলছে। এসকল প্রযুক্তি ভবিষ্যৎ অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং পরিবেশ নিয়ন্ত্রণের মূল চাবিকাঠি হিসাবে বিবেচিত। উপরন্তু, প্রকৃতির বিচিত্র ঘটনা এবং পরীক্ষাগারে উদ্ভুত বিভিন্ন নতুন নতুন বিষয় ব্যাখ্যা করতে প্লাজমা  বিজ্ঞানের পরিধি ক্রমান্বয়ে  বিস্তৃত হচ্ছে। প্লাজমা  গবেষণার নতুন দুটি ক্ষেত্র হচ্ছে: ১) ডাস্টি (কমপ্লেক্স) প্লাজমা  এবং ২) কোয়ান্টাম প্লাজমা।  প্রকৃতির ও গবেষণাগারের বিচিত্র ঘটনা বুঝতে ডাস্টি (কমপ্লেক্স) প্লাজমা গত কয়েক দশক ধরে প্লাজমা  বিজ্ঞানের একটি প্রধান ক্ষেত্র হিসাবে বিবেচিত হয়ে আসছে। অপরদিকে, অর্ধপরিবাহী ও ধাতব পদার্থের বৈশিষ্ট্য, ধাতব ন্যানোস্ট্রাকচার (মেটাল ক্লাস্টার, ন্যানোপারটিকেল, থিন ফ্লিম, প্রভৃতি), ইত্যাদির বিচিত্র চরিত্র আরো সঠিক ভাবে বুঝতে কোয়ান্টাম প্লাজমা নিয়ে গবেষণা ক্রমান্বয়ে বিস্তৃত হচ্ছে।

 

উদ্দেশ্য

প্লাজমা ফিজিক্স ডিভিশন পরমাণু শক্তি কেন্দ্র, ঢাকার একটি নবীনতম বিভাগ যা  প্লাজমা  ফিজিক্স সম্পর্কিত বিভিন্ন ক্ষেত্র নিয়ে মৌলিক, এ্যাডভান্সড এবং এ্যাপ্লাইড গবেষণা পরিচালনার জন্য জানুয়ারী ২০১৬ সালে কাজ শুরু করে।অন্যকথায় বলা যায় যে, প্লাজমা ফিজিক্স ডিভিশনের প্রধান উদ্দেশ্য হচ্ছে প্লাজমার বিভিন্ন বিষয়ে গবেষণা এবং প্লাজমা  ভিত্তিক প্রযুক্তি উন্নয়নে সক্ষমতা গড়ে তোলা।

 

গবেষণার ক্ষেত্র

প্লাজমা ফিজিক্স ডিভিশন সক্রিয়ভাবে  প্লাজমা নিয়ে মৌলিক  গবেষণা, ডাস্টি (কমপ্লেক্স) প্লাজমা, কোয়ান্টাম প্লাজমা, শিল্প প্লাজমা, ডেনস প্লাজমা  ফোকাস ডিভাইস এবং কন্ট্রোল্ড থার্মোনিউক্লিয়ার ফিউশন –এর বিভিন্ন ক্ষেত্র নিয়ে তাত্ত্বিক, কম্পিউটেশনাল এবং পরীক্ষামূলক গবেষণায় নিযুক্ত রয়েছে।

 

সহযোগিতা

প্লাজমা ফিজিক্স ডিভিশন দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্লাজমা পদার্থবিদ্যা বিষয়ক গবেষক দলের সাথে কাজ করছে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গবেষণা ছাত্র (এম.এস., এম.ফিল., পি-এইচ.ডি.) –দের একাডেমিক কাজে ঘনিষ্ঠ ভাবে সহযোগিতা করে চলছে। গবেষণা কাজে বিভাগটির সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য প্লাজমা রিসার্চ সেন্টার, সুকুবা বিশ্ববিদ্যালয়, সুকুবা, জাপানের সহায়তা নিচ্ছে।
 


Share with :