Wellcome to National Portal
বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৭ জুন ২০১৯

ইন্সটিটিউট অব বিকিরণ ও পলিমার প্রযুক্তি

সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতি (Citizen's Charter)

দুদকে অভিযোগ করতে দুদকে স্থাপিত হট লাইন, ১০৬ (টোল ফ্রি)-তে কল করা যেতে পারে।

পরমাণু শক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠান
গণকবাড়ি, সাভার, ঢাকা - ১৩৪৯
ফোন: +৮৮-০২ ৭৭৮৯৩৪৩
ই-মেইল: gb.irpt@gmail.com

গবেষণা কার্যক্রমঃ

১। রেডিয়েশন প্রসেসিং অব পলিমারিক ম্যাটেরিয়াল
অনেকগুলো  ক্ষেত্রে রেডিয়েশন প্রসেসিং অব পলিমারিক ম্যাটেরিয়ালের উপর  গবেষণা ও উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে । এগুলো হলোঃ

১। কাইটোসানঃ
ই-(১-৪) লঙ্কিড উ গ্লুকোজঅ্যামাইন (ডিঅ্যাসিলিটেড ইউনিট) ও ঘ-অ্যাসিটাইল-উ- গ্লুকোজঅ্যামাইন (অ্যাসিলিটেড ইউনিট ) যুক্ত হয়ে উৎপন্ন লিনিয়ার পলিস্যাকারইডকে কাইটোসান বলা হয়। বানজ্যিকভাবে কটিনিকে ডিঅ্যাসিটিলাইজেশন করে কাইটোসান উৎপন্ন করা হয়। ডিঅ্যাসিটিলাইজেশনের ফলে বেশির ভাগ অ্যাসিটাইল  গ্রুপ বিতাড়িত হয়। এই কটিনি হল ক্রাস্টাসিয়ান গ্রুপের জীব (কাঁকড়া , চিংড়ী) এর বহিরাবরণ এবং ছত্রাক কোষের গুরুত্বর্পূণ  উপাদান। বিভিন্ন কাজে ব্যবহারের জন্য চিংড়ীর খোসা থকেে কাইটোসান/ অলিগো-কাইটোসান আহরণ করা হয়। আমাদের গ্রুপ চিংড়ীর খোসা থেকে কাইটোসান আহরণের কাজ করছে।  কাইটোসানকে গামা ইরাডিয়েশনের মাধ্যমে অলিগো-কাইটোসান এ রূপান্তর করা হয়। অলিগো-কাইটোসান কে ধান, ভুট্টা , গম, চা, টম্যাটো, মরিচ ইত্যাদি ফসলে প্ল্যান্ট গ্রোথ প্রমোটার হিসাবে ব্যবহার করা হয়। অলিগো-কাইটোসানকে ফল সংরক্ষণের কাজেও ব্যবহার করা হয়। এই সব বায়োপলিমারের এন্টিমাইক্রোবায়াল গুণাবলী এবং খাদ্য বস্তুর উপর তাদের আবরণ তৈরী করার সক্ষমতাকে খাদ্য সংরক্ষণের কাজে ব্যবহার করা হয়।

 

২। বায়োডগ্রিডেবেল প্যাকেজিং ম্যাটারিয়ালঃ
পেট্রোলিয়াম নির্ভর সিনথেটিক পলিমার  প্যাকেজিং ম্যাটারিয়াল হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাদের টেকসই ভৌত ও তাপীয় গুণাবলী এবং সাশ্রয়ী মূল্যের জন্য।  কিন্তু এই সিনথেটিক পলিমারের বেশীর ভাগই বায়োডগ্রিডেবেল তথা পরিবেশ বান্ধব নয়।  বাংলাদেশে ২০০২ সালে সিনথেটিক পলিথিনের তৈরী মোড়কজাত বস্তু নিষিদ্ধ করা হয়। তাই পরিবেশ সেচেতনতার কারণে বায়োডগ্রিডেবেল প্যাকেজিং ম্যাটারিয়াল উদ্ভাবনে বহুমুখী প্রচেষ্টা অব্যহত থাকে। বায়োপলিমার বা জৈব যৌগের বেশ কিছু মিশ্রণ র্বতমানে ব্যবহৃত সিনথেটিক পলিমারের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। এই ধরনের সুপরিচিত বায়োপলিমারের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল কাইটোসান( চিংড়ীর খোসা থেকে আহরিত), স্টার্চ ( আলু থেকে আহরিত) , অ্যালগনিটে ( সামুদ্রকি আগাছা থেকে আহরিত), জিলাটিন ( চতুষ্পদ জন্তুর হাড় থেকে আহরিত),  শালিক (পোকার নিঃসরণ থেকে আহরিত)  ইত্যাদি । এই ধরনের প্রাকৃতিক পলিমার প্যাকেজিং ম্যাটারিয়াল হিসেবে ব্যবহার উপযোগী। আমাদের গ্রুপ প্যাকেজিং ম্যাটারিয়াল তৈরীর জন্য স্টার্চ – কাইটোসান , স্টার্চ – পলি ভিনাইল অ্যালকোহল প্রভৃতি মশ্রিণ থেকে বায়োডগ্রিডেবেল ফল্মি তৈরীর কাজ করছে।
 



Share with :

Facebook Facebook